তরুন জেলে ও তার আত্মা

তরুন মৎস্যশিকারী সর্বশক্তি দিয়ে জাল টানতে থাকে। জালের দড়ি টেনে টেনে সে বাহুতে পেঁচাতে থাকে। তার বাহুর শিরা ফুলে ওঠে। দড়ি টেনে সে জালের বেড় ছোট করে আনে । জালের চক্র ছোট হয়ে ক্রমেই কাছে আসতে থাকে। একসময় জালটাকে  সে টেনে তুলতে সক্ষম হয়।কিন্তু জালটাকে তুলে দেখা গেল তাতে আদৌ কোন মাছ নেই, আর না আছে তাতে কোন সাগরদানো বা ভৌতিক কোন কিছু । তবে ছোট্ট একটা মৎস্যকন্যাকে ঘুমন্ত অবস্থায় পাওয়া গেল।
...মৎস্যকন্যা যখন দেখল যে তার আর পালাবার উপায় নেই তখন সে বললো, "আমি তোমাকে অনুরোধ করছি, আমাকে ছেড়ে দাও। কেননা ...আমার বাবা বৃদ্ধ এবং নি:সঙ্গ ।" তরুন জেলে বলল,"আমাকে কথা দাও,যখন আমি তোমাকে ডাকব তখন তুমি আমার জন্য গান গাবে। তোমার কন্ঠে সমুদ্রের গাঁথা  শুনে মাছেমাছে আমার জাল ভরে যাবে।" জেলের ইচ্ছে মতন মৎস্যকন্যাটি রাজি হয় ...। তারপর জেলে মৎস্যকন্যাকে বাহু থেকে মুক্ত করে পানিতে ছেড়ে দেয় । মৎস্য কন্যাটি ভয়ে  কাঁপতে কাঁপতে পানিতে ডুব দেয়।
 একদিন তরুন জেলে মৎস্যকন্যাকে বলে- ‌শোনো , ছোট মৎস্যকন্যা, আমি তোমাকে ভালবাসি, আমার ভালবাসার স্বীকৃতি স্বরূপ তুমি আমাকে তোমার বর করে নাও ।’ কিন্তু মাছমেয়েটা মাথা নেড়ে বলল-‘তোমার দেহে  একটা মানব আত্মা রয়েছে। যদি তুমি ওটা ত্যাগ করতে পারো তবে আমি তোমাকে ভালবাসতে পারি।’ তখন তরুন জেলে বলে -‘আমার আত্মা আমার কী এমন
কাজে লাগে? আমি তো তাকে দেখতে পাই না, ছুঁতেও পারি না। আমি তাকে জানি না। তারপর তরুন জেলে আনন্দে চিৎকার করে নৌকার ওপর তড়াক করে লাফিয়ে ওঠে আর দু’বাহু বাড়িয়ে ছোট্ট মৎস্য কন্যাকে বলে-‘আমি আমার আত্মাকে ত্যাগ করব। তুমি হবে আমার কনে আমি হবো তোমার বর। আমরা দু’জনে অথই সাগরে ঘর বাধবো। তুমি যেমন তোমার গান আমাকে শুনিয়েছ তেমনি তোমার যা কিছু প্রিয়তম ও পছন্দের আমি  তার সব  করবো, না হলে আমাদের জীবন বিচ্ছিন্ন হয়ে যাবে।’
ছোট্ট মৎস্যকন্যা তরুন জেলের কথা শুনে খুশিতে হেসে উঠে আর লজ্জায় সে তার দু’হাতে মুখ ঢেকে ফেলে ।
 অস্কার ওয়াইল্ডের রূপকথা `The Fisherman And His Soul’ আগে কখনো বাংলায় হয়েছে কি না জানা নেই । যদি না হয়ে থাকে তো আমাদের কিশোর পাঠকদের জন্য শেখ মনিরুল হকের প্রথম চেষ্টাটি দারুন বলতেই হবে । বইমেলায় মহাকাল  প্রকাশনীর স্বনামধন্য প্রকাশক মো. মনিরুজ্জামান  অনুবাদটি প্রকাশ করেছেন। বইটি পাওয়া যাবে, মহাকাল প্রকাশনীর. ১৭৬ নং স্টল।
 বই             : তরুন জেলে ও তার আত্মা
 মূল            :  অস্কার ওয়াইল্ড
 অনুবাদ      : শেখ মনিরুল হক
 প্রকাশক      : মো. মনিরুজ্জামান, মহাকাল প্রকাশনী ।